facebooktwitterpinteresttumblr
আল্লাহর গুনবাচক নাম আল-মুজীব, ইহার অর্থ হলঃ দোয়া কবুলকারী। তিনি ঐ সত্তা যিনি যেকোন অবস্থায় যেকোন স্থানে প্রার্থনাকারীর ডাকে সাড়া দেন।

আল্লাহর গুনবাচক নাম আল-মুজীব, ইহার অর্থ হলঃ দোয়া কবুলকারী। তিনি ঐ সত্তা যিনি যেকোন অবস্থায় যেকোন স্থানে প্রার্থনাকারীর ডাকে সাড়া দেন।

রমজান মাসের ফজিলতপূর্ণ ইবাদতগুলোর মধ্যে একটি হল ইতিকাফ। ইতিকাফের সংজ্ঞা, ইহার শর্ত, হিকমত, সুন্নত সমূহ, এবং ইহার মাসায়েল ও আহকাম গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন।

রমজান মাসের ফজিলতপূর্ণ ইবাদতগুলোর মধ্যে একটি হল ইতিকাফ। ইতিকাফের সংজ্ঞা, ইহার শর্ত, হিকমত, সুন্নত সমূহ, এবং ইহার মাসায়েল ও আহকাম গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন।

আল্লাহ তাআলা মানুষের কাছ থেকে যে দীনদারী চান তাহলো, মানুষ দিনে রাতে, সকালে সন্ধ্যায় এক কথায় ২৪টি ঘণ্টাই সে আল্লাহ তাআলার সাথে সম্পর্ক বজায় রাখবে, তাকে স্মরণ করবে। যেখানে, যেভাবেই থাকুক না কেন এক মুহূর্তের জন্যও সে তাকে ভুলে যাবে না। তাকে বিস্মৃত হবে না। মোটকথা তার জীবনের প্রতিটি কাজ পরিচালিত হবে আল্লাহর মর্জি মুতাবিক এবং তার দেওয়া বিধি-বিধানের সীমানায় আবদ্ধ থেকে। এতে তার জীবন সুখ-শান্তি ও সমৃদ্ধিতে ভরে উঠবে এবং রা পাবে সে যাবতীয় বিপদাপদ থেকে।

আল্লাহ তাআলা মানুষের কাছ থেকে যে দীনদারী চান তাহলো, মানুষ দিনে রাতে, সকালে সন্ধ্যায় এক কথায় ২৪টি ঘণ্টাই সে আল্লাহ তাআলার সাথে সম্পর্ক বজায় রাখবে, তাকে স্মরণ করবে। যেখানে, যেভাবেই থাকুক না কেন এক মুহূর্তের জন্যও সে তাকে ভুলে যাবে না। তাকে বিস্মৃত হবে না। মোটকথা তার জীবনের প্রতিটি কাজ পরিচালিত হবে আল্লাহর মর্জি মুতাবিক এবং তার দেওয়া বিধি-বিধানের সীমানায় আবদ্ধ থেকে। এতে তার জীবন সুখ-শান্তি ও সমৃদ্ধিতে ভরে উঠবে এবং রা পাবে সে যাবতীয় বিপদাপদ থেকে।

আল্লাহ তায়ালা তাঁর দেওয়া শরিয়ত তথা জীবনব্যবস্থাকে মানুষের নিকট পোঁছে দেওয়ার জন্য, যুগে যুগে নবী-রাসুল প্রেরন করেছেন। সুতরাং কেউ যদি নবী-রাসুলগণের প্রতি ঈমান না আনে, সে আল্লাহর প্রতিও ঈমান আনে নি।

আল্লাহ তায়ালা তাঁর দেওয়া শরিয়ত তথা জীবনব্যবস্থাকে মানুষের নিকট পোঁছে দেওয়ার জন্য, যুগে যুগে নবী-রাসুল প্রেরন করেছেন। সুতরাং কেউ যদি নবী-রাসুলগণের প্রতি ঈমান না আনে, সে আল্লাহর প্রতিও ঈমান আনে নি।

আল-ওয়ারিস' আল্লাহর নামসমূহের একটি, ইহার অর্থ হলঃ উত্তরাধিকারী। আল্লাহ তায়ালা সৃষ্টিকুল ধ্বংসের পরও নিজের পূর্ণাঙ্গ রাজত্ব নিয়ে বিদ্যমান থাকবেন, সকল রাজত্ব তার রাজত্বের দিকেই প্রত্যাবর্তন করবে।

আল-ওয়ারিস' আল্লাহর নামসমূহের একটি, ইহার অর্থ হলঃ উত্তরাধিকারী। আল্লাহ তায়ালা সৃষ্টিকুল ধ্বংসের পরও নিজের পূর্ণাঙ্গ রাজত্ব নিয়ে বিদ্যমান থাকবেন, সকল রাজত্ব তার রাজত্বের দিকেই প্রত্যাবর্তন করবে।

প্রমাণাদি